নীড় পাতা / আইন-আদালত / বড়াইগ্রামে মা মেয়েকে নির্যাতনের অভিযোগ

বড়াইগ্রামে মা মেয়েকে নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম
নাটোরের বড়াইগ্রামে মা চম্পা বেগম (৪০) ও মেয়ে রিতাকে (২০) পিটিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় একটি দোকানদারের বিরুদ্বে। সোমবার সন্ধায় উপজেলার সদর ইউনিয়নের শরিষাহাট বউ বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতনকারী দোকানদার উপজেলার শরিষাহাট এলাকার আজির উদ্দিনের ছেলে শরীফ (৩০)। নির্যাতিত মহিলা বড়াইগ্রাম থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে নির্যাতিত মহিলার ভাই জাহিদুল ইসলাম।
অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, স্থানীয় একটি সার দোকানের কর্মারী স্ত্রী চম্পা বেগমের মেয়ে রিতা এবং জামাই তাদের বাড়িতে বসবাস করত। প্রায় ৬ মাস পূর্বে মেয়ের সাথে জামাইয়ের বনিবনা না হওয়ায় ডিভোর্স হয়। গত রবিবার রাতে চম্পার ভাই জাহিদুলে নিকট জামাইয়ের দোকান বাকী ৮২০ টাকা দাবী করে শরীফ। সোমবার বিকেলে জাহিদুল চম্পা বেগমকে টাকার কথা বললে দোকানদার শাহ আলমের নিকট পরামর্শ চাওয়ার সময় শরীফের শাশুড়ী (৪৮) শুনতে পেয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে শুরু করে। চম্পা বেগম প্রতিবাদ করলে জাহিদুলে স্ত্রীর ভাই রুবেল হোসেন (২৭) ও শশুড় রফিকুল ইসলাম (৫২) এসে চম্পা বেগমকে মারপিট শুরু করে। মেয়ে রিতা উদ্বার করতে গেলে তাকেও লোহার রড দিয়ে মারপিট করে। জাহিদুলের ছেলে মুঞ্জু (২৫) এগিয়ে গেলে তাকে মারপিট করে। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
জাহিদুল ইসলাম বলেন, এতোদিন পরে টাকা দাবী করা হচ্ছে। আমি বলেছি টাকা যদি পাওনা থাকে অবশ্যই পাবে। আগে খোজ খবর নেই তার পরে পাবে। তার আগেই এরকম ভাবে মারপিট দুঃখ জনক।
আবাসিক চিকিৎসক ডলি রাণী কুন্ডু বলেন, মহিলার শরীরে আঘাতের দাগ রয়েছে।
অভিয্ক্তু শরীফ বলেন, আমি দোকান বাকী বাবদ টাকা চাওয়ায় কথা কাটাকাটি হয়েছে। মারধরের কোন ঘটনা ঘটে নাই।

আরও দেখুন

বড়াইগ্রামে এমপি বাহিনীর কান্ড

ইউপি কার্যালয়ে ঢুকে ভাংচুর ও চেয়ারম্যানকে মারধর; প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ  নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রধানমন্ত্রীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *