নীড় পাতা / কৃষি / স্বেচ্ছায় ইঁদুর শিকার করা মুক্তার মোল্লাকে সম্মাননা দিলেন বকুল এমপি

স্বেচ্ছায় ইঁদুর শিকার করা মুক্তার মোল্লাকে সম্মাননা দিলেন বকুল এমপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাগাতিপাড়াঃ
নাটোরের বাগাতিপাড়ার সেই দিনমজুর মুক্তার মোল্লাকে ফসলি মাঠ থেকে ইঁদুর শিকারের জন্য সম্মাননা দিয়েছেন স্থানীয় সাংসদ শহিদুল ইসলাম বকুল। কৃষি ক্ষেত্রে এমন ব্যতিক্রমী অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ কৃষি বিভাগ থেকে তাকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়। বুধবার মাস ব্যাপী ইঁদুর নিধন অভিযানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তাকে সম্মাননা উপহার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল। নিজের জমি নেই তবুও ফসলের ক্ষতির হাত থেকে কৃষকদের বাঁচাতে গত দশ বছর ধরে নিজ ইচ্ছায় ফসলের মাঠ থেকে ইঁদুর তাড়ানোসহ শিকার করার কাজটি করে যাচ্ছেন মুক্তার মোল্লা। তিনি একদিনে প্রায় সাড়ে তিনশ ইঁদুর শিকার করেন।

এলাকাবাসী জানায়, ইঁদুর মারার এক অদ্ভুত নেশায় মুক্তার মোল্লা প্রায় দশ বছর ধরে উপজেলার চকহরিরামপুর, হরিরামপুর, তমালতলা, যোগীপাড়া, কোয়ালীপাড়াসহ আশে-পাশের মাঠে মাঠে ইঁদুর শিকারের খোঁজে ঘুরে বেড়ান। প্রতিদিন বিকাল হলেই ফসলের মাঠে ইঁদুর শিকারে নেমে পড়েন। আগে বিষটোপ দিয়ে ইঁদুর শিকার করতেন।

এখন সিটকা ফাঁদে (ইঁদুর মারার যন্ত্র) ইঁদুর শিকার করেন। ফাঁদে আটকে পড়া ইঁদুরগুলো মাটিতে পুঁতে দেন। প্রতিদিন প্রায় ৩০ থেকে ৪০ টি ইঁদুর মারেন। এ দশ বছরে অন্তত ৫০ হাজার ইঁদুর মারার দাবি করেন মুক্তার মোল্লা। এখন এসব মাঠে ইঁদুরের উপদ্রব অনেকটায় কমে গেছে বলেও দাবী করেন তিনি। ইঁদুর তাড়ানোর নেশার কারনে স্থানীয়রা তাকে এখন ‘জার্মানির হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা’র সাথে তুলনা করতে শুরু করেছেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোমরেজ আলী বলেন, ফসলের বড় শত্রু ইঁদুর নিধন করে ফসলের ক্ষতি ঠেকাতে মুক্তার মোল্লার কৃষি ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখছেন। তার ইঁদুর ধরার বিষয়টি নজরে এলে স্থানীয় কৃষি বিভাগ এ ভাল কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ উপজেলার সদর ইউনিয়নের চকহরিরামপুর গ্রামের আব্দুস সামাদ মোল্লার ছেলে মুক্তার মোল্লাকে সম্মাননা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়। মাস ব্যাপী ইঁদুর নিধন অভিযানের প্রথম দিনের অনুষ্ঠানে তাকে সম্মানিত করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বাগাতিপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) প্রিয়াংকা দেবী পাল, উপজেলা চেয়ারম্যান অহিদুল ইসলাম গকুল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খোদিজা বেগম শাপলা, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল হাদী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। উপজেলা জিমনেসিয়ামে অনুষ্ঠিত ইঁদুর নিধন অভিযানের ওই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে র‌্যালি শেষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আরও দেখুন

রাণীনগরে গত চার দিনেও ঝরে ক্ষতিগ্রস্থ্য ৭৮ পরিবারের পাশে দ্বাড়য়নি কেউ!

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাণীনগর: নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার পারইল ইউনিয়নের তিনটি গ্রামে ঝরে ক্ষতিগ্রস্থ্য ৭৮ পরিবারের পাশে এখনো …