সোমবার , জানুয়ারি ১৭ ২০২২
নীড় পাতা / জেলা জুড়ে / সিংড়ার মানবিক মেয়র গভীর রাতে পৌরবাসীর দোর গোড়ায়

সিংড়ার মানবিক মেয়র গভীর রাতে পৌরবাসীর দোর গোড়ায়

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিংড়াঃ
হটলাইনে ফোন অতঃপর রাতে সেসব বাড়ি বাড়ি নিজে গাড়ি চালিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিচ্ছেন সিংড়া পৌরসভার মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌছে দিচ্ছেন হিসেবে চাল, ডাল, আলুসহ খাদ্য সামগ্রী।

গত ২৯ এপ্রিল নাটোরের সিংড়া উপজেলায় প্রথম ৫ জন করোনা পজেটিভ রোগী ধরা পড়ে। পরের দিন লকডাউন ঘোষনা করে উপজেলা প্রশাসন। লকডাউনের পর দোকানপাট বন্ধ হয়ে পড়ে। সীমিত হয়ে পড়ে মানুষের জীবনযাত্রা। পৌর এলাকায় খাদ্যের অভাব যেনো কোনো ঘরে না থাকে সে লক্ষে তিনি চালু করেছেন হটলাইন।

ইতোমধ্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে প্রত্যকটি ওয়ার্ডে গঠন করা হয়েছে করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সেচ্ছাসেবক কমিটি। প্রত্যকটি মহল্লায় অসহায়, দরিদ্র জনগোষ্ঠীর তালিকা তৈরি করে তাদের খাদ্য সামগ্রী দেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি মধ্যবিত্ত পরিবার, যারা চাইতে পারে না। তাদের জন্য হটলাইন সার্ভিস চালু করেছে সিংড়ার মানবিক মেয়র। দিনে যেসব কল আসে রাতে তাদের কাছে পৌছে দেয়া হচ্ছে খাদ্য সামগ্রী। এশা ও তারাবি নামাজ শেষে সেচ্ছাসেবক টিম নিয়ে তিনি বাড়ি বাড়ি পৌছে দিচ্ছেন খাদ্য সামগ্রী। চলো পরিবহনে নিজে গিয়ে অভুক্ত পরিবারকে পৌছে দিচ্ছেন খাবার। গত কয়েকদিনে এমন ১২১ টি পরিবারে খাবার পৌছে দিয়েছেন তিনি।

এদিকে মহান মে দিবস উপলক্ষে চার শতাধিক শ্রমিকের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন তিনি। শুক্রবার রাত ১০টায় পৌরসভা চত্বরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার লেখা খাদ্যসামগ্রী শ্রমিকদের হাতে তুলে দেন। অপরদিকে শনিবার রাতে পৌর এলাকার ৪৩৫ টি পরিবারের মাঝে তিনি খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন।

সিংড়া পৌরসভার মেয়র জানান, প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপির নিজস্ব তহবিল থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে। এরপর পৌর এলাকার মানুষের কথা ভেবে আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর পরামর্শে হটলাইন সার্ভিস চালু করে নিজস্ব তহবিল এবং বিভিন্ন অনুদানে তহবিল গঠন করে মানুষকে সহায়তা প্রদান অব্যহত রয়েছে। তিনি আরো বলেন, প্রতি বছর মে দিবসের অনুষ্ঠানে সিংড়ার ৫ জন শ্রমিককে মালিকে পরিণত করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

কিন্তু হঠাৎ একসাথে ৫ জন করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ায় বাজারের কুলি-মজদুর, ইমারত নির্মাণসহ রিকশা-ভ্যান ও মোটর শ্রমিকরা মানবিক জীবন যাপন করছে। তাদের পরিবারে দেখা দিয়েছে খাদ্য সংকট। তাই প্রতিমন্ত্রী পলকের নির্দেশে অসহায় শ্রমিকদের মাঝে চাল, ডাল, আলু, লবণ, তেলসহ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। এর আগে ও তাদেরকে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়।

আরও দেখুন

আবারো নাটোরে নগরমাতা উমা চৌধুরী জলি

নিজস্ব প্রতিবেদক: আবারো নাটোরে পৌরমাতা নির্বাচিত হলেন উমা চৌধুরী জলি। নাটোর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ …