নীড় পাতা / জেলা জুড়ে / বড়াইগ্রামে স্বামী থাকতেও বিধবা ভাতা নিচ্ছেন নারী কাউন্সিলর!

বড়াইগ্রামে স্বামী থাকতেও বিধবা ভাতা নিচ্ছেন নারী কাউন্সিলর!

নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম
নাটোরের বনপাড়া পৌরসভার সংরক্ষিত আসনের নারী কাউন্সিলর শরিফুন্নেসা শিরিনের (৪০) নামে বিধবা ভাতা তোলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা রবিউল করিম অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সোমবার উপজেলা আইন শৃঙখলা কমিরি সভায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুরাইয়া আক্তার কলি অভিযোগ করে বলেন, সংরক্ষিত নারী আসনের কাউন্সিলর শরিফুন্নেসা শিরিন স্বচ্ছল ও স্বধবা হওয়া সত্তে¡ও বিধবা ভাতা ভোগ করছেন। শিরিন পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কালিকাপুর গ্রামের ভাতাভোগি তয়জান বেগম মারা যাওয়ার পর নাম পরিবর্তন করে শরিফুন্নেসা শিরিন নামে ০১-০৭-১৪ সাল থেকে অদ্যাবধি নিয়মিত ভাতা তুলে আসছেন। তার ভাতা বই নম্বর- ৭৫/১ এবং হিসাব নম্বর- ০০২১৩৩০৬২।

সভায় উপস্থিত স্থাণীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস কাউন্সিলের নামে কার্ডের বিষয়টি খোঁজ নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ইউএনও আনোয়ার পারভেজকে নির্দেশ দেন।

এসময় সভায় উপস্থিত বনপাড়া পৌর মেয়র কেএম জাকির হোসেন বলেন, বিষয়টি জানা ছিলনা, অগোচরে ঘটে থাকতে পারে। পরবর্তী মাসিক সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
সমাজসেবা কর্মকর্তা রবিউল করিম বলেন, কার্ডটি আমি যোগদানের আগে ইস্যু করা। আমার জানা না থাকায় এমটা হয়েছে। আজকের পর থেকে তার নামে আর ভাতা বরাদ্দ দেয়া হবে না।

অভিযুক্ত শরিফুন্নেছা শিরিন বলেন, আমার যখন দ্বিতীয় বিয়ের স্বামী সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পরে আমার নামে কার্ডটি করা হয়েছিল। কিন্তু পরবর্তী সেটি বাতিলের জন্য জানানো হলে অফিসের জটিলতার তা বাতিল করে নাই। আমি টাকাও তুলি নাই।

ইউএনও আনোয়ার পারভেজ বলেন, ভাতা’র কার্ডটি বাতিলসহ পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য কাউন্সিলর শরিফুন্নেসা শিরিনের মোবাইলে একাধিকবার কল করলেও তিনি কল রিসিভ করেন নাই।

আরও দেখুন

সিংড়ার মাটিতে ৩৭ বছর যারা ক্ষমতায় ছিলো তারা জনগণের কল্যানে কাজ করেনি- পলক

নিজস্ব প্রতিবেদক:তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা করোনাকালিন …