শনিবার , ডিসেম্বর ১০ ২০২২
নীড় পাতা / অর্থনীতি / বড়াইগ্রামে অবৈধ ব্যাংকিং কার্যক্রম চালাচ্ছে এসটিসি: প্রতারণার আশঙ্কা

বড়াইগ্রামে অবৈধ ব্যাংকিং কার্যক্রম চালাচ্ছে এসটিসি: প্রতারণার আশঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম
বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন ছাড়া সমবায় অধিদপ্তরের উপ-আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়ে বড়াইগ্রামে অবৈধভাবে ব্যাংকিং কার্য্যক্রম চালাচ্ছে স্মল ট্রেডার্স কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিমিটেড (এসটিসি)। ফলে অনুমোদনহীন ব্যাংকিং কার্য্যক্রম চালানো প্রতিষ্ঠানটি এক সময় গ্রাহকের আমানত হাতিয়ে উধাও হয়ে যেতে পারে বলে স্থানীয়দের আশঙ্কা।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বনপাড়া বাজারের এমএ মজিদ ম্যানশনের দোতলায় গত ১ অক্টোবর দুপুরে ব্যাংকটির নতুন শাখার উদ্বোধন করেন এসটিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান মির্জা আতিকুর রহমান। শাখা অফিস খুলে ইসলামি শরিয়া ভিত্তিক পরিচালনার কথা বলে সঞ্চয়, ডিপিএস, চলতি হিসাবসহ সব ধরণের ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু করেন কর্মকর্তারা। তবে নাম ব্যাংক আর অনুমোদন সমবায় অধিদপ্তর হওয়ার খবরে শাখাটি চালু হওয়ার পর থেকেই স্থানীয়দের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
উপজেলা সমবায় বিভাগ সুত্রে জানা যায়, স্মল ট্রেডার্স কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিমিটেড (এসটিসি) সমবায় অধিদপ্তর থেকে সমবায় সমিতি হিসাবে শুধুমাত্র নারায়ণগঞ্জ জেলায় কাজ করার অনুমতি নিয়েছে। সংশোধিত উপ-আইন অনুযায়ী কর্ম এলাকার বাইরে কার্যক্রম পরিচালনা করা সমবায় সমিতি বিধিমালা ২০০৪ এর ১২(২) এর পরিপন্থি। এছাড়া সমবায় আইন ২০০১, সংশোধিত ২০০২ ও ২০১৩ এর ২৩(১) ধারা অনুযায়ী কোন সমবায় সমিতি তার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য শাখা অফিস খুলতে পারবে না এবং সমবায় সমিতি আইনের ২৬ ধারা অনুযায়ী সদস্য ছাড়া অন্য কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে আমানত গ্রহণ বা ঋণ প্রদান করতে পারবে না। কিন্তু তারা এ আইনের তোয়াক্কা না করে বনপাড়ায় শাখা খুলে সমিতির পরিবর্তে ব্যাংক পরিচয়ে আর্থিক কার্য্যক্রম চালাচ্ছে। মঙ্গলবার সরেজমিনে ব্যাংকের কার্যালয়ে গেলে শাখা খোলার কোন বৈধ অনুমতি বা রেজিষ্ট্রেশন সংক্রান্ত দলিল, বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন সংক্রান্ত বৈধ কাগজপত্রাদি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা দেখাতে পারেননি।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শাখা ব্যবস্থাপক হুমায়ন কবীর জানান, এ ব্যাংকের শাখা খুলতে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন লাগবে না। এ সময় তিনি সমবায় বিভাগের অনুমোদন নিয়ে শাখা খুলেছেন বলে দাবী করলেও তার দাবীর সপক্ষে কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেননি।
উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা সুশান্ত নারায়ণ খাঁ জানান, আমি এ ব্যাপারে খোঁজ খবর নিয়েছি। তারা বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন ছাড়া সমবায় আইন অমান্য করে ব্যাংক পরিচালনা করছে। আমি এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানিয়েছি।
ইউএনও আনোয়ার পারভেজ জানান, বিষয়টি শুনেছি। আমি শিঘ্রই তাদের কাগজপত্র যাচাই করে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো।

আরও দেখুন

লালপুরে আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালন

নিজস্ব প্রতিবেদক, লালপুর: নাটোরের লালপুরে আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালন করেছে উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *