শুক্রবার , জুলাই ১৯ ২০২৪
নীড় পাতা / অর্থনীতি / বিনিয়োগ বাড়ল ২৭ হাজার কোটি টাকা

বিনিয়োগ বাড়ল ২৭ হাজার কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ফের টানা ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা দিয়েছে শেয়ারবাজারে। গত সপ্তাহে সবকটি মূল্য সূচক বাড়ার মাধ্যমে টানা তিন সপ্তাহ ঊর্ধ্বমুখী থাকল শেয়ারবাজার। তিন সপ্তাহের এই টানা উত্থানে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়েছে ২৭ হাজার কোটি টাকার ওপরে। এর মধ্যে গত সপ্তাহেই বেড়েছে প্রায় সাড়ে ৬ হাজার কোটি টাকা। তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়ে যাওয়ায় বিনিয়োগ বেড়েছে।

গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের (বৃহস্পতিবার) লেনদেন শেষে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ১৬ হাজার ৯৪৭ কোটি টাকা, যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৪ লাখ ১০ হাজার ৬১৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ৬ হাজার ৩৩০ কোটি টাকা।

এর মাধ্যমে টানা তিন সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বাড়ল ২৬ হাজার ৪১৪ কোটি টাকা। গত সপ্তাহের আগের সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বাড়ে ১১ হাজার ৩৩৯ কোটি টাকা এবং তার আগের সপ্তাহে বাড়ে ৮ হাজার ৭৪৫ কোটি টাকা। বাজার মূলধন বৃদ্ধি পাওয়ার অর্থ তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার ও ইউনিটের দাম সম্মিলিতভাবে ওই পরিমাণ বেড়েছে।

এদিকে, গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ১৩ দশমিক ৩৭ পয়েন্ট বা দশমিক ২৬ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ১১৯ দশমিক ৮২ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৪১ শতাংশ এবং তার আগের সপ্তাহে বাড়ে ১০৫ দশমিক ৭৫ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ১৭ শতাংশ। অর্থাৎ তিন সপ্তাহের বড় উত্থানে ডিএসইর প্রধান সূচক বাড়ল ২৩৮ পয়েন্ট।

প্রধান মূল্য সূচকের পাশাপাশি বড় উত্থান হয়েছে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচকের। গত সপ্তাহজুড়ে সূচকটি বেড়েছে ২৩ দশমিক ৪৬ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৩২ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ৪৮ দশমিক শূন্য ৩ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৭৮ শতাংশ এবং তার আগের সপ্তাহে বাড়ে ৩৭ দশমিক ৪৩ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ২২ শতাংশ।

অন্যদিকে, ইসলামি শরিয়াহ ভিত্তিতে পরিচালিত কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই শরিয়াহ্‌ সূচক গত সপ্তাহে বেড়েছে ১০ দশমিক ৫৭ পয়েন্ট বা দশমিক ৯০ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ১৬ দশমিক ৬৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৪৯ শতাংশ এবং তার আগের সপ্তাহে বাড়ে ৩৩ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৯৯ শতাংশ।

সবকটি মূল্য সূচকের উত্থান হলেও গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেওয়া যে কয়টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে, কমেছে

তার থেকে বেশি। সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে দাম বৃদ্ধির তালিকায় নাম লিখিয়েছে ১১৫টি প্রতিষ্ঠান। বিপরীতে দাম কমেছে ১৮২টির। আর ৬৫টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৯১৪ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৮৩৪ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন বেড়েছে ৮০ কোটি ২৭ লাখ টাকা বা ৯ দশমিক ৬২ শতাংশ।

আর গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৩ হাজার ৬৫৯ কোটি ৮২ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ৪ হাজার ১৭৩ কোটি ৪১ লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন কমেছে ৫১৩ কোটি ৫৯ লাখ টাকা বা ১২ দশমিক ৩১ শতাংশ। মোট লেনদেন কমার কারণ ১৬ ডিসেম্বরের কারণে গত সপ্তাহে এক কার্যদিবস কম লেনদেন হয়েছে।

গত সপ্তাহে ডিএসইর মোট লেনদেনে ‘এ’ গ্রম্নপ বা ভালো কোম্পানির অবদান ছিল ৭৬ দশমিক ৬৬ শতাংশ। এছাড়া ‘বি’ গ্রম্নপের ১৬ দশমিক ৪৭ শতাংশ, ‘জেড’ গ্রম্নপের ১ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ এবং ‘এন’ গ্রম্নপের ৫ দশমিক ৮২ শতাংশ অবদান ছিল।

গত সপ্তাহে ডিএসইর মূল বাজারে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হওয়া ১০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে-বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস, বেক্সিমকো, আইএফআইসি ব্যাংক, রূপালী ইন্সু্যরেন্স, এসএস স্টিল, ফরচুন সুজ, ওয়ালটন, ডমিনেজ স্টিল বিল্ডিং, ম্যারেকো বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস।

আরও দেখুন

বড়াইগ্রামে ইউসিসিএ লি.এর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন ওয়াজেদ আলী 

নিজস্ব প্রতিবেদক: বড়াইগ্রাম (নাটোর)  নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলায় গতকাল বৃহষ্পতিবার ব্যালেট পেপারের মাধ্যমে স্ষ্ঠু,সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ …