বুধবার , নভেম্বর ৩০ ২০২২
নীড় পাতা / জেলা জুড়ে / গুরুদাসপুর / বিএনপির সাবেক এমপি মোজাম্মেল হকের আগমনে উচ্ছ¡সিত নেতাকর্মি

বিএনপির সাবেক এমপি মোজাম্মেল হকের আগমনে উচ্ছ¡সিত নেতাকর্মি



নিজস্ব প্রতিবেদক,গুরুদাসপুর
নাটোর-৪ (গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম) আসনের বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক এম মোজাম্মেল হকের আগমনে প্রাণ ফিরে পেয়েছেন এলাকার নেতাকর্মি ও সমর্থকরা। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর তিনি দলীয় অভ্যন্তরীন কোন্দলের কারণে একরকম অভিমান করে ঢাকায় চলে যান। দীর্ঘদিন পর দলের স্বার্থে সব অভিমান ভুলে নিজ আসনে ফিরেছেন। নেতাকে ফিরে পেয়ে এলাকার কর্মি-সমর্থকের মাঝে যেন নতুন করে প্রাণের সঞ্চার হয়েছে।

প্রতিদিন উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের শতশত নেতাকর্মি সাবেক এই সংসদ সদস্যের গুরুদাসপুর বাজারস্থ নিজ বাসভবনে সমবেত হচ্ছেন। সেখানে নেতাকর্মিদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময়সহ দলীয় সাংগঠনিক নানা কার্যক্রম ও কর্মসূচি নিয়ে চলছে আলোচনা। বিএনপির দুর্দিনের কান্ডারী হিসেবে এসব নেতাকর্মি ও সমর্থকেরা সাথে থাকায় কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছেন সাবেক এই এমপি।

দলীয় একাধিক নেতাকর্মি জানান, ২০০৮ সালে ধানের শীষ প্রতীকে জাতীয় সংসদ নির্বাচন করেন এম মোজাম্মেল হক। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও সমর্থকরা চেয়েছিলেন আবারও তাকেই মনোনয়ন দেয়া হোক। কিন্তু তার বিরুদ্ধে এলাকায় না থাকার কিছু কাল্পনিক অভিযোগ এনে তাকে মনোনয়ন বঞ্চিত করা হয়।

এরপর থেকে নেতাকর্মিদের মনোবল ভেঙ্গে যায় এবং সাংগঠিনক কার্যক্রমে স্থবিরতা দেখা দেয়। তবে দলের এই দুঃসময়ে এলাকার নেতাকর্মিরা তাদের নেতাকে কাছে পেয়ে নতুন উদ্যোগে দল পুনঃগঠনের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। তাদের প্রত্যাশা সামনের নির্বাচনে নাটোর-৪ আসনটি আবারও বিএনপির দখলে আসবে।

ইতিমধ্যে আহবায়ক কমিটি গঠন উপলক্ষে গুরুদাসপুর উপজেলা ও পৌর বিএনপি’র আয়োজনে এক কর্মিসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১ ডিসেম্বর) বিকেলে সাবেক পৌর বিএনপি’র সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র মশিউর রহমান বাবলুর চাঁচকৈড় বাসভবনে এই কর্মিসভা হয়।

সভায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন সাবেক মন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. এম রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু। এসময় সভার প্রধান অতিথি নাটোর জেলা বিএনপির আহবায়ক আলহাজ আমিনুল হক, প্রধান বক্তা জেলা বিএনপির সদস্য সচিব রহিম নেওয়াজ, বিশেষ অতিথি জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ কাজী শাহ আলম এবং নাটোর-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক এম মোজাম্মেল হকসহ জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাচ্চু, জেলা বিএনপি’র সদস্য স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সভাপতি ফরহাদ আলী দেওয়ান শাহিন, জেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সদস্য বাবুল চৌধুরী প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

সাবেক উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মিসভায় বক্তারা বলেন, সরকার বিএনপি ও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ভয় পায় বলে মিথ্যা মামলায় কারাগারে রেখে গনতান্ত্রিক আন্দোলন দমিয়ে রেখেছে। আরও বলেন, আগামী ৫ ডিসেম্বর অসুস্থ্য বেগম জিয়াকে জামিন না দিলে জনগন রাস্তায় নেমে গনআন্দোলনের মাধ্যমে তাকে মুক্ত করবে। এসময় উপজেলা, পৌর, ইউনিয়ন বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মি উপস্থিত ছিলেন।

আরও দেখুন

রিটার্ন জমার সময় এক মাস বাড়ছে

নিউজ ডেস্ক:বিভিন্ন মহলের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ব্যক্তিশ্রেণির করদাতাদের আয়কর রিটার্ন জমার সময় এক মাস বাড়ানো হচ্ছে। …