শুক্রবার , জানুয়ারি ২৭ ২০২৩
নীড় পাতা / জাতীয় / নারী চা শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে আসছে বড় প্রকল্প

নারী চা শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে আসছে বড় প্রকল্প

বাংলাদেশে প্রথম চা বাগান করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল ১৮২৮ সালে৷ অবিভক্ত ভারতে চট্টগ্রামের কোদালায় তখনই জমি নেয়া হয়৷ চট্টগ্রাম ক্লাব ১৮৪০ সালে সেখানেই পরীক্ষামূলকভাবে রোপণ করা হয় প্রথম চা গাছ৷ তবে প্রথম বাণিজ্যিক আবাদ শুরু হয় সিলেটে, ১৮৫৪ সালে৷ সে বছর সিলেট শহরের উপকণ্ঠে মালনিছড়া চা বাগান প্রতিষ্ঠিত হয়৷ এ বাগানে চা উৎপাদনের মধ্য দিয়ে চা শিল্পের যাত্রা শুরু হয়৷ মূলত তখন থেকে ধীরে ধীরে চা শিল্প এদেশে প্রতিষ্ঠা লাভ করে৷ দেশের চা বাগানসমূহের প্রায় দশ লক্ষাধিক শ্রমিক কাজ করে নিয়মিতভিত্তিতে। যার মধ্যে অধিকাংশই নারী শ্রমিক। সম্প্রতি সিলেট বিভাগের চা বাগানের নারী শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে চারটি আন্তর্জাতিক সংস্থার সহযোগিতায় সরকার দুই বছর মেয়াদি একটি প্রকল্প গ্রহণ করতে যাচ্ছে। এতে ব্যয় হবে ২০ লাখ মার্কিন ডলার (প্রায় ১৭ কোটি টাকা)। 

গত ২১ সেপ্টেম্বর, শনিবার রাজধানীর কাওরান বাজারে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরে (ডিআইএফই) এক সভায় এ তথ্য জানানো হয়।  শ্রম মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আলী আজমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়কারী আবুল কালাম আজাদ।

এসময় আরো জানানো হয়, চা শ্রমিকরা অসুস্থতা, চাকরি বা আয়ের নিরাপত্তাহীনতা এবং বার্ধক্যজনিত শারীরিক দুর্বলতাসহ নানা সমস্যায় পড়েন। তাদের মাঝে মাদক, পারিবারিক সহিংসতা, জোরপূর্বক বিবাহ, বাল্য বিবাহ, কৈশোরে গর্ভধারণ, যৌন হয়রানি এবং বহুবিবাহের মতো অনেক সমস্যা বিরাজমান। এক্ষেত্রে নারী শ্রমিকরা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হন। এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে চা শিল্পের এসব সমস্যা নিরসন করা সহজ হবে।

উল্লেখ্য, সিলেট বিভাগের মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সিলেট জেলার চা শিল্প শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়ন এবং সামাজিক সুরক্ষায় প্রস্তাবিত প্রকল্পে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ চা বোর্ড কাজ করবে। এছাড়া আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও), জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল (ইউএনএফপিএ), জাতিসংঘের শিশুবিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ, জাতিসংঘের নারীবিষয়ক সংস্থা ইউনাইটেড নেশন উইমেন (ইউএন উইমেন) প্রকল্প বাস্তবায়নে সার্বিক সহযোগিতা করবে।

আরও দেখুন

ভাসানচর গেল আরও ৩৫৬ রোহিঙ্গা

১৫তম ধাপে কক্সবাজার থেকে নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচরে আরও ৩৫৬ জন রোহিঙ্গাকে পাঠানো হয়েছে। …