শনিবার , অক্টোবর ১ ২০২২
নীড় পাতা / আইন-আদালত / নাটোরের নলডাঙ্গায় ভুয়া চক্ষু চিকিৎসক সহ ৩ জন আটক

নাটোরের নলডাঙ্গায় ভুয়া চক্ষু চিকিৎসক সহ ৩ জন আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, নলডাঙ্গা
নাটোরের নলডাঙ্গায় ভুয়া চক্ষু চিকিৎসক সহ ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে নলডাঙ্গা উপজেলার বাঁশিলা গ্ৰাম থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলো ফরিদপুর জেলার কোতোয়ালি থানার পশ্চিম আলীপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে কামরুজ্জামান শাহীন, নওগাঁ জেলার রাণীনগর উপজেলার গোনা গ্রামের উজ্জ্বল হোসেনের ছেলে এস এম ইথিন বাবু এবং দিনাজপুর জেলার বোচাগঞ্জ উপজেলার আব্দুর রাজ্জাক খানের ছেলে বুলবুল হাসান খান। মঙ্গলবার সকালে তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত সোমবার বাঁশিলা গ্রামে গিয়ে চক্ষুশিবির করা অবস্থায় তাদের আটক করা হয়। এর আগে তারা বিনা অনুমতিতে এলাকায় বিনামূল্যে চক্ষু শিবির এর নামে এলাকার নিরীহ জনগণের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল। সেখানে রোগী প্রতি ৩০ টাকা নিয়ে টিকেট দেওয়া হচ্ছিল এবং প্রত্যেককে ৫শ থেকে ৭শ টাকার চশমা দেয়া হচ্ছিল। অনেক রোগীকে চোখের মধ্যে ইনজেকশন করে তারা জানাচ্ছিল যে এই রোগীকে নাটোর লায়ন্স চক্ষু হাসপাতালে দ্রুত ভর্তি করতে হবে।

সেখানে গিয়ে পুলিশ তাদের অনুমতি পত্র দেখতে চাইলে তারা তা দেখাতে ব্যর্থ হয়। এমনকি ডাক্তারের কোন সার্টিফিকেট আছে কিনা এমন প্রশ্ন করা হলে তারা নানান সময়ে নানা বিভ্রান্তিকর তথ্য দিতে থাকে। পরে সেই তথ্য যাচাই করে দেখা যায় তাদের মধ্যে এস এম ইথেন বাবু নামে যে চক্ষু চিকিৎসক তার এমবিবিএস পাশের কোন সার্টিফিকেটই নেই। বরং তার ঠিকানা নিয়ে নানারকম বিভ্রান্তির জন্ম দেয়। কামরুজ্জামান শাহীন তিনি নিজেকে নাটোরের চকবৈদ্যনাথ গুড়ের আড়ত এলাকায় লায়ন্স চক্ষু হাসপাতাল এর স্বত্বাধিকারী পরিচয় দেন। কিন্তু সেই চক্ষু হাসপাতালে কোনরকম অনুমতি পত্র দেখাতে ব্যর্থ হন তিনি এবং ঢাকা লায়ন্স চক্ষু হাসপাতালের পরিচালকের বা কোনো কর্মকর্তার নাম ও তিনি বলতে পারেননি। পরে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। থানায় তাদের বিরুদ্ধে পেনাল কোডের ৪১৯,৪০৬,৪২০,১১৪ ধারায় মামলা দায়েরের পর আদালতে প্রেরণ করা হয়।

নাটোরের সিভিল সার্জন ডাঃ আজিজুল ইসলাম কে লায়ন্স চক্ষু হাসপাতালে অনুমতি আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান, এ নামে নাটোরে কোন হাসপাতাল আছে এমন তথ্য জানা নেই এবং তারা কোন অনুমতি পত্র নেয়নি। বাঁশিলা গ্রামের আবদুল মজিদ জানান, নিরীহ মানুষের সাথে চিকিৎসা নিয়ে এমন প্রতারণা যাতে আর কেউ করতে না পারে সে লক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যথাযথ পদক্ষেপ নেবেন বলে আশা করি।

আরও দেখুন

গুরুদাসপুরে আশিক হত্যার আসামীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, গুরুদাসপুর:নাটোরের গুরুদাসপুরে বহুল আলোচিত আশিক শেখ (২৪) হত্যার প্রধান আসামী গ্রেফতারকৃত আশিক ইকবাল …