শনিবার , জানুয়ারি ২২ ২০২২

ছয় দফা থেকে স্বাধীনতা

নিউজ ডেস্ক:

ফেব্রুয়ারি ১৯৬৬
লাহোরে পাকিস্তানের বিরোধীদলের সম্মেলন শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে ছয় দফা পেশ করেন বঙ্গবন্ধু।

মে ১৯৬৬
৮ মে থেকে একটানা ৩৩ মাস কারাবন্দি ছিলেন বঙ্গবন্ধু। ১৪ বছরের কারাজীবনে এটাই ছিল তাঁর দীর্ঘ কারাবাস।

জানুয়ারি ১৯৬৮
পাকিস্তান সরকার শেখ মুজিবুর রহমানের কণ্ঠ স্তব্ধ করে দিতে তাঁকে প্রধান আসামি করে মোট ৩৫ জন বাঙালির বিরুদ্ধে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা দায়ের করে।

জুন ১৯৬৮
ঢাকার এক বিশেষ ট্রাইব্যুনালে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার আসামিদের বিচার শুরু হয়। বিচারের প্রথম দিনেই বঙ্গবন্ধু একজন বিদেশি সাংবাদিককে বলেন, তারা আমাকে ছয় মাসের বেশি এখানে রাখতে পারবে না।

জানুয়ারি ১৯৬৯
আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে পূর্ব পাকিস্তানে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

২২ ফেব্রুয়ারী, ১৯৬৯
আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় জেল থেকে মুক্তির পর কন্যা শেখ হাসিনার সাথে হাস্যোজ্জ্বল বঙ্গবন্ধু

ডিসেম্বর ১৯৭০
৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ঐতিহাসিক জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ১৬৯টি আসনের মধ্যে ১৬৭টি আসনে জয় লাভ করে।

মার্চ ১৯৭১
৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধু রেসকোর্স ময়দানে লাখো বাঙালির উদ্দেশ্যে ঘোষণা দেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’। ২৬শে মার্চ প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন।

ডিসেম্বর ১৯৭১
দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর ৩০ লক্ষ প্রাণের বিনিময়ে ১৬ই ডিসেম্বর অর্জিত হয় আমাদের স্বাধীনতা, জন্ম হয় স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র বাংলাদেশের।

আরও দেখুন

নাটোরে ঝটিকা মিছিল ও সমাবেশের মধ্য দিয়ে ছাত্রদলের ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: নাটোরে ঝটিকা মিছিল ও সমাবেশের মধ্য দিয়ে ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করেছে জেলা …