নীড় পাতা / উত্তরবঙ্গ / চাঁপাইনবাবগঞ্জে সদর উপজেলার ভোট গ্রহণের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন

চাঁপাইনবাবগঞ্জে সদর উপজেলার ভোট গ্রহণের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন


নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ৫ম ধাপের উপজেলা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ আগামীকাল অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। আর ভোটের সব ধরণের প্রস্তুতি সম্পূন্ন করা হয়েছে। প্রস্তুত রাখা হয়েছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও। এ উপলক্ষে আজ দুপুরে উপজেলা পরিষদের হলরুমে থেকে ভোট গ্রহনের জন্য ব্যালটবাক্স, ব্যালট পেপার, সীলসহ নানা উপকরণ বুঝিয়ে দেন প্রি-সাইজ অফিসাদের হাতে। ভোটের সরঞ্জাম বিতরনের সময় উপস্থিত ছিলেন, রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোতাওয়াক্কিল রহমান, সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কায়সার মাহমুদসহ অন্যরা।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে সদর উপজেলায় মোট ভোটারের সংখ্যা ৩ লক্ষ ৮১ হাজার ৯১৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লক্ষ ৯০ হাজার ৬৯৩ জন এবং নারী ভোটার ১ লক্ষ ৯১ হাজার ২২১ জন। ১৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা মিলে গঠিত সদর উপজেলা নির্বাচনে ১৫৭টি ভোটকেন্দ্রের ৯৯৫টি ভোটকক্ষে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন ভোটাররা। প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে থাকবেন প্রিজাইডিং অফিসারের অধিনে পুলিশ ও আনসার সদস্যরা। এমনকি স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে মাঠে থাকবেন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অন্যান্য সদস্যরাও। এদিকে ভোটাদের সুষ্ঠুভাবে ভোট প্রদানের লক্ষ্যে ৬ প্লাটন বিজিবি, ৪৭১ জন পুলিশ, প্রায় ২ হাজার আনসার-গ্রাম এবং র‌্যাবের ৬টি দল মোতায়ন করা হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর আগে শনিবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক তার সম্মেলন কক্ষে জেলার প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াকর্মীদের সাথে মতবিময় করেন। তিনি বলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রশাসনের পাশাপাশি জেলার গণমাধ্যমকর্মীদের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন।

আরও দেখুন

রাণীনগরে গত চার দিনেও ঝরে ক্ষতিগ্রস্থ্য ৭৮ পরিবারের পাশে দ্বাড়য়নি কেউ!

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাণীনগর: নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার পারইল ইউনিয়নের তিনটি গ্রামে ঝরে ক্ষতিগ্রস্থ্য ৭৮ পরিবারের পাশে এখনো …