নীড় পাতা / সাহিত্য ও সংস্কৃতি / ইতিহাস ও ঐতিহ্য / গুরুদাসপুরে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার প্রতিবাদকারী তিন বন্ধুকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান

গুরুদাসপুরে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার প্রতিবাদকারী তিন বন্ধুকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান

নিজস্ব প্রতিবেদক,গুরুদাসপুর
নাটোরের গুরুদাসপুরে মহান বিজয় দিবসে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যার প্রতিবাদকারী তিন বন্ধুকে সম্মাননা কেষ্ট প্রদান করেন উপজেলা প্রশাসন।

আজ সকাল ১০টায় উপজেলা প্রশাসন আয়োজনে গুরুদাসপুর সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্যারেড শেষে তিন বন্ধুকে ওই সম্মাননা কেষ্ট প্রদান করা হয়। ওই সময়ে বঙ্গবন্ধু হত্যা হওয়ার খবর রেডিওতে শোনার পরপরই তার প্রতিবাদ করাই তিন বন্ধুর ২বছর ডিটেনশন ও ৬মাস কারাদন্ড হয়েছিল। সেই সময়ে তাদের পক্ষে কথার কেউ ছিল না। বঙ্গবন্ধু হত্যার ৪৩ বছর কেটে গেলেও কেউ খোঁজ নেয়নি তাদের।গুরুদাসপুর পৌর সদরের চাঁচকৈড় বাজারে বসবাসকারী সেই প্রতিবাদী তিন বন্ধু প্রবীর বর্মন,নির্মল কর্মকার ও শ্রী অশোক কুমার পালকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সম্মাননা কেষ্ট প্রদান করেন,উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তমাল হোসেন। এই সম্মাননা কেষ্ট পেয়ে তিন বন্ধু উপজেলা প্রশাসনকে ধন্যবাদ দিয়ে ভারী কন্ঠে বলেন, সেই সময়ে অন্যায় ভাবে আটক করে আমাদের জীবন বিপন্ন করে সোনালী ভবিষ্যৎ গড়তে দেওয়া হয়নী। জেল থেকে মুক্তি লাভের পরও গ্রেফতারের আতংকে ভয়ে ভয়ে থাকতে হত সেই সময়ে। শেষ বয়সে উপজেলা প্রশাসন আমাদের এই সম্মান দেখানোর জন্য আজ আমরা গর্বিত।

এসময় উপস্থিত ছিলেন,গুরুদাসপুর পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শাহনেওয়াজ আলী মোল্লা,উপজেলা সহকারি কমিশনার(ভূমি) মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলাল শেখ,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোকসানা আক্তার,উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান,পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এমদাদুল হক মোহাম্মদ আলী,গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাহারুল ইসলামসহ প্রমুখ।

আরও দেখুন

রাণীনগরে গত চার দিনেও ঝরে ক্ষতিগ্রস্থ্য ৭৮ পরিবারের পাশে দ্বাড়য়নি কেউ!

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাণীনগর: নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার পারইল ইউনিয়নের তিনটি গ্রামে ঝরে ক্ষতিগ্রস্থ্য ৭৮ পরিবারের পাশে এখনো …