বৃহস্পতিবার , জুলাই ৭ ২০২২
নীড় পাতা / আইন-আদালত / ঈশ্বরদীতে মাত্র ১২ ঘণ্টার ব্যবধানে দুইজনকে গণপিটুনি

ঈশ্বরদীতে মাত্র ১২ ঘণ্টার ব্যবধানে দুইজনকে গণপিটুনি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঈশ্বরদী
ঈশ্বরদীতে মাত্র ১২ ঘণ্টার ব্যবধানে ছেলে ধরা সন্দেহে দুইজনকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন এলাকাবাসী। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নে জয়নগর ওয়াপদা গেটের সামনে মোহাম্মদ লোকমান আলি (৪৮) এবং সোমবার রাতে একই ইউনিয়নের মানিকনগরে মানসিক প্রতিবন্ধী এক অজ্ঞাত নারী (৪০) এলাকাবাসীর গণপিটুনির শিকার হয়েছে।

আহত লোকমান আলী চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার দানিয়ালগাছি গ্রামের মৃত শামসুদ্দিনের ছেলে। জানা যায়, স্থানীয় লোকজন অপরিচিত এবং সঙ্গে পটলা দেখে ছেলেধরা সন্দেহে মারধর করে এবং পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ লোকমানকে উদ্ধার করে তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। গণপিটুনিতে লোকমান সামান্য জখম হয়েছেন।

এ বাপারে ঈশ্বরদী থানার ওসি বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, বিষয়টি জানার সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। পরে ওই শ্রমিককে উদ্ধার করে পুলিশ। মূলত তার কথা বলার ভাষার কারণে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। এ ছাড়া মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে ঘটনাটি বড় করা হয়েছে বলেও জানান ওসি।

অন্যদিকে এলাকাবাসী জানায়, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ৪০ বছরবয়সী এক নারী পূর্বপাড়া গ্রামের জনৈক আক্কেল প্রামাণিকের বাড়িতে ঢুকে অসংলগ্ন আচরণ করে। ওই মানসিক ভারসাম্যহীন নারী বাড়ির গৃহিনীর বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে এক পর্যায়ে গলাকেটে নেবে বলে হুমকি দেয়। এতে আক্কেল প্রামাণিকের স্ত্রী ভীত হয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করলে আশেপাশের লোকজন এসে ধরে ফেলে। এসময় ওই নারীর একটি ছিন্নভিন্ন ব্যাগ হতে বিভিন্ন ধরনের শুকনো খাবার, একটি চাকু ও টেপ পাওয়া যায়। চাকু ও টেপ দেখে লোকজন তাকে গলা কাটা ছেলেধরা বলে ধারণা করে।

এই খবর দ্রুত এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে হাজার হাজার মানুষ সমাবেত হয় এবং ঈশ্বরদীর সর্বত্র ঘটনা নিয়ে আলোচনার ঝড় উঠে।

আরও দেখুন

চাঁপাইনবাবগঞ্জে গুড়া মসলায় নিষিদ্ধ রং ও চাউলের গুড়া মিশিয়ে বিক্রির দায়ে তরিকুল ইসলামকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ: চাঁপাইনবাবগঞ্জে গুড়া মসলায় নিষিদ্ধ দ্রব্য, রং এবং চাউলের গুড়া মিশিয়ে বিক্রির দায়ে …